Join 94,145 users already on read.cash

School life story....

3 12 exc
Avatar for Ramisa-123
Written by   82
1 year ago

#তুই_ই_থাকবি পাটঃ-১

প্রথম বলে নেই। এটা একটা সত্যি কাহিনি..

একটা ছেলে অার একটা মেয়ে কখন প্রেমে পড়ে যায় সেইটা তারা নিজেও জানে না।

এটা ক্লাস ২ পড়ে সেই ছেলে অার মেয়ে কাহিনি।

হয়তো এটা পড়ে অনেকেই বাজে মন্তব্য করবেন।

যা-ই হোক,

তো শুরু করি,

একটা ছেলে, ক্লাস ২পড়ে। তার ছিল এইটা নতুন স্কুল অার মেয়ের অাগে থেকেই এই স্কুলে পড়ত।

যখন সে-ই ছেলে টা স্কুল গেলে ১ম দিন,ঔই দিন ঔই মেয়ের সাথে দেখা হয় নাই। ২ দিন দেখা হলো তখন ওই মেয়ে কে দেখে তার খুব ভালোই লাগলো। তখন তার বাসা কোথায় জিজ্ঞেস করলো। তখন তারা ছোটো, "কেউ কিছু বলতো না তখন"

ছেলেঃ- তোমার বাড়ি কোথায়?

মেয়েঃ- _____________________।তোমর কোথায়?

ছেলেঃ-_________________________.

মেয়েঃ-ও। তাহলে তো অামার এলাকা তুমি স্কুল অাসার সময় পড়ে?

ছেলেঃ- হু।পড়েতো।

মেয়েঃ- তো, কাল কয়টা বাজে অাসবা স্কুল।

ছেলেঃ- এইতো ১০টাই...

মেয়েঃ- ও,

ছেলেঃ-হু। অাচ্চা,তোমার কয় ভাই বোন?

মেয়েঃ- ১ ভাই! অার অামি। তোমরা?

ছেলেঃ- এই..............................

মেয়েঃ- অাচ্চা। যাই অাজ!

ছেলেঃ- কোথায় যাবা?

মেয়েঃ- বাড়ি।

ছেলেঃ- ও।অামিও তো যাব।চল এক সাথে যাই।

মেয়েঃ-না। অামার চাচচু বাইক নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে বাবার দোকানে সামনে।

ছেলেঃ-ও।অাচ্চা যাও।

মেয়েঃ-হু।

__________________________________________

তখন অাস্তে অাস্তে তারা এক সাথে হয়।

তার পর এক দিন। স্কুল যাওয়ার সময় একসাথে দেখা হয়। তখন তারা দুই জনই ছিল।

তখন হাঁটতে হাঁটতে এক সাথে স্কুলে গেল।

এইদিন অাবার এক সাথে স্কুলে থাকে অাসার সময় মেয়ে বলোঃ-"------,অাজ অামরা এক সাথে যাবো।হু

ছেলেঃ- তোমার চাচচু।

মেয়েঃ- অাসবে না অাজ।

ছেলেঃ- কেনো

মেয়েঃ- এক জায়গায় গেছে।

ছেলেঃ- ও,অাচ্চা।

মেয়েঃ- অাচ্চা, তুমি কয়টাই স্কুলের জন্য রেডি হও।

ছেলেঃ- এই তো ৯ টা ৩৫থেকে।কেনো?

মেয়েঃ- ও, না এমনে তে।

ছেলেঃ-ও।অার তুমি কয়টাই বের হও বাড়ি থেকে।

মেয়েঃ- এই তো এক এক দিন এক এক টাইম।

ছেলেঃ- ও। অাচ্চা,কাল অামি দাঁড়া।বো কিনা ___________দোকানে একটু সামনে?

মেয়েঃ- কয়টাই দাঁড়াবা?

ছেলেঃ- একদম ১০টাই। ঠিক অাছে?

মেয়েঃ- ঠিক অাছে।১০ থেকে ১০ মিনিট দাঁড়াবা, তার পর চলে যাবা।

ছেলেঃ- ঠিকাছে।

__________________________________________

এই ভাবে অনেক দিন গেল।

একদিন মেয়ে টা অন্য একটা ছেলে সাথে খেলচিলো।

তখন তার খুব খারাপ লাগছিল।

তখন ক্লাস শেষে সেই ছেলে টা একটু টিন ভাঙ্গে নিলো,নিয়ে ওই মেয়ে সামনে গিয়ে ওই মেয়ের কে বলো। "তোমার নামের প্রথম অক্ষর কি "

মেয়ে বলোঃ- কোনো? হু।

ছেলেঃ- বলো না ।

মেয়েঃ- বলব না।

ঐ সময় মেয়ে এই কথা বলে বাইরে চলে গেল।

তখন তার একটা বন্ধু বললো "খাতা থেকে দেখে নে।

তখন সে দেখে নিল।

তার পর তাকে ক্লাস ডেকে অানল অাবার। তখন ক্লাস কেউ ছিল না তারা ৩ জন ছাড়া।

তখন সে ছেলে মেয়ে টির সামনে হাট কেটে তার নামের ১ম অক্ষর লিখলো।

তার পর মেয়ে বললো এই গুলো কি৷ হু। এই টা বলে সে অাবার বার হয়ে গেল।

তখন থেকে তাদের মধ্যে খুব ভালো সম্পর্ক হচ্ছিল। একদিন ক্লাস মধ্যে মার খেল।বাড়ির কাজের জন্য ওই মেয়ে সামনে। তখন যাওয়ার বললো সব সময় বাড়ির কাজ অানবা।

ছেলে বললো হু।

ক্লাস ৩ টে ওঠলো নতুন।

তখন অারো অনেক ছেলেমেয়ে অাসলো স্কুলে। তখন রাকিব নামে একটা ছেলে এলো। তখন তার সাথে বেশি কথা বলতো। অার এক সোজা বসতো। তখন ছেলে মেয়ে কে বলো অাগে অামার সোজা বসতা অার এখন ওর সোজা বসো।অামার জন্য দাঁড়াও না কেনো।

এই বলো জগরা হলো। তার পর থেকে টানা ২ বছর কথা হয় না।

এর পর তারা ওই এলাকায় থেকে চলে অাসবে। তাই এক দিন করতে গেল গিয়ে বলো অামি অাজ চলে যাবো।

অন্য জায়গায়৷

মেয়েঃ-ও।

ছেলেঃ- তু অামরা তো বন্ধু হতে পারি না কি। কখনোই বিরক্ত করবো না৷ just friend hobo.

মেয়েঃ-ঠিক অাছে।

এই টা বলে তারা হাত মিলালো।

তার পর অাবার অালাদা ওই ছেলে চলে গেল অন্য জায়গায়৷

এখনে শেষ না।

#তুইই_থাকবি পাটঃ-১ এটা।

ভালো লাগলে শেয়ার করুন।

নিজে স্কুল জীবনের কাহিনি বলতে কমেন্ট করুন অথরা inbox করুন।

6
$ 0.00
Avatar for Ramisa-123
Written by   82
1 year ago
Enjoyed this article?  Earn Bitcoin Cash by sharing it! Explain
...and you will also help the author collect more tips.

Comments

School life ta onk vlo silo... ami to class captain silam tai.. sir vhule class chok ba duster nah anto tokhon amk bolto anar jonno ar ami aito dusto silam j chok duster ante ante class e ses hoay jeto coz ami oi time a onno school a gurtam. karon oi time sobai class korto bahire Theke dekhte amr khub vlo lagto

$ 0.00
1 year ago

Onk dustu

$ 0.00
1 year ago

I miss my school life so much..

$ 0.00
1 year ago